শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে অসময়ে মাচায় তরমুজ চাষে সফল কৃষক: বাবু  দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমেদ হোসেন আর নেই ফুলপুরে মাস্ক না পড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা সোনারগাঁওয়ে পৌরসভার মেয়র প্রার্থী ঝরার নির্বাচনী প্রচারনা ও লিফলেট বিতরণ গণমাধ্যমকর্মীরা করোনাকালের নির্ভীক যোদ্ধা: তথ্যমন্ত্রী মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরোধ সৃষ্টি ষড়যন্ত্রের অংশ: এম এ আউয়াল মঙ্গলবার থেকে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু বাইডেন ২৪ নভেম্বর নতুন মন্ত্রী পরিষদের নাম ঘোষণা করবেন পুরনো রোলেই পরের শ্রেণিতে উঠবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা নাইজেরিয়ায় মসজিদে গুলিতে নিহত ৫, ইমামসহ ৪০ জনকে অপহরণ
২২ দিন বন্ধ থাকার পর পদ্মা-মেঘনায় মাছ

২২ দিন বন্ধ থাকার পর পদ্মা-মেঘনায় মাছ ধরা শুরু


দেশের গর্জন ফটো

গর্জন ডেস্কঃ ২২ দিন বন্ধ থাকার পর ৫ নভেম্বরের প্রথম প্রহর থেকে চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় আবারো মাছ ধরা শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে মাছ ধরার সব প্রস্তুতি নিয়ে জেলেরা নদীতে মাছ শিকারে নেমেছেন। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী জানান, গত ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত ইলিশ আহরণ, বিপণন, পরিবহন, ক্রয়-বিক্রয়, বিনিময় ও মজুদ নিষিদ্ধ ছিল। এ নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ২৭১টি অভিযান পরিচালনা করে ৬৪টি মোবাইল কোর্ট এবং ৭১টি মামলার মাধ্যমে ১৭৩ জন জেলেকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। এ সময় তাদের দুই লাখ ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জেলেদের কাছ থেকে জব্দ করা হয় পাঁচ হাজার ১১২ মেট্রিক টন ইলিশ ও বিপুল পরিমাণ জাল। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১৩ লাখ ৮৯ হাজার ৫৬০ টাকা। গত ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত টানা ২২ দিন নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরা বিক্রি, মজুদ ও পরিবহন নিষিদ্ধ করে সরকার। এই সময়টাতে মতলব উত্তরের ষাটনল থেকে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী পর্যন্ত প্রায় ৯০ কিলোমিটার নদী এলাকাকে মা ইলিশের প্রজননের জন্য অভয়াশ্রম ঘোষণা করা হয়। এ সময় মা ইলিশ মিঠা পানিতে ডিম ছাড়ে। তাই সরকার এই সময়ে নির্ধারিত নদী এলাকায় সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ করে। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সংরক্ষণে উপজেলা টাস্কফোর্স সব সময় নদীতে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় জেলার চার উপজেলার নিবন্ধিত ৫০ হাজার জেলেকে খাদ্য সহায়তা হিসেবে ২০ কেজি করে চাল দেওয়া হয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »