সোনারগাঁয়ে ভূমি অফিসের গাড়ী চালকের বিরুদ্ধে সাবেক

সোনারগাঁয়ে ভূমি অফিসের গাড়ী চালকের বিরুদ্ধে সাবেক স্ত্রীর বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ


দেশের গর্জন ফটো

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: সোনারগাঁয়ে ভূমি অফিসের গাড়ী চালল আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে তার সাবেক স্ত্রী মোসাঃ শেফালী আক্তারকে (২৮), ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করেছে। এ ঘটনায় গত ২৪ আগস্ট মোসাঃ শেফালী আক্তার বাদী হয়ে স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহা-পরিদর্শক, পুলিশ উপ-মহা পরিদর্শক (ডিআইজি) ঢাকা রেঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রসাশক এর বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, মোসাঃ শেফালী আক্তারের বাবার নাম: মৃত রহুল আমিন, সাং-লক্ষীপুর, থানা: মহেশপুর, জেলা: ঝিনাইদা, বর্তমানে উদ্ববগঞ্জ (সোনারগাঁও উপজেলা পশু হাসপাতাল সংলগ্ন শাহজাহানের বাড়ীর ভাড়াটিয়া), থানা: সোনারগাঁও, জেলা: নারায়ণগঞ্জ। উপরোক্ত বিষয়ে আপনার অবগতি ও প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অভিযোগ করিতেছি যে, আমার প্রথম স্বামী মোঃ মিজানুর রহমান ও আমার দুই ছেলে অলিউল্লাহ (১৪) ও সফিউল্লাহ (৮) কে নিয়া আমরা নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানার উদ্ধবগঞ্জ শাহাপুর এলাকায় বসবাস করিয়া আসিতেছিলাম এবং আমার বড় ছেলে এলাকার একটি মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত রহিয়াছে। গত ০৪/০৫ বছর পূর্বে সংসারে অভাব-অনটন দেখা দিলে আমার স্বামী এলাকার লোকের কাছ থেকে কিছু টাকা হাওলাদ নিয়া সংসারে খরচ করেন। পরে হাওলাদ নেয়া টাকা পরিশোধ করিতে পারে নাই বলিয়া পাওনাদাররা আমার স্বামীর প্রতি জুলুম অত্যাচার করিলে আমার স্বামী আমাকে না জানাইয়া অন্যত্র চলিয়া যায়। পরবর্তীতে আমি অনেক এলাকায় খোঁজাখুঁজি করার পরও আমার স্বামীর সন্ধান পাই নাই। পরে আমি কোন উপায় না পাইয়া সোনারগাঁও থানার বিভিন্ন এলাকায় দিন মজুরের কাজ করিয়া কোন রকমে আমার দুই ছেলেকে নিয়া দিন যাপন করিয়া আসিতেছিলাম। এরই মধ্যে আবুল হোসেন (৩২), পিতা: মৃত ফজর আলী, সাং: বানীনাথপুর, থানা: সোনারগাঁও, জেলা: নারায়ণগঞ্জ, বর্তমানে গাড়ী চালক সোনারগাঁও উপজেলা ভূমি অফিস (নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার ভূমি অফিসারের গাড়ী চালক পদে কর্মরত রহিয়াছেন) জেলা: নারায়ণগঞ্জ এর সাথে আমার পরিচয় হয় এবং উক্ত ব্যক্তি আমার স্বামীকে খুঁজিয়া আনিয়া দেওয়ার আশ্বাস দিয়া সে আমার কাছ থেকে লিখা বিহীন স্ট্যাম্পে ও সাদা কাগজে আমার স্বাক্ষর নেয়। পরবর্তীতে উক্ত আবুল হোসেন অসৎ উদ্দেশ্যে আমাকে কু-প্রস্তাব দেয় এবং আমি তাহার কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে সে আমাকে ও আমার ছেলেদেরকে নানা ধরনের ভয় ভীতি দেখায় এবং অবৈধ মাদক দ্রব্য দিয়া আমাকে জেল খাটানোর হুমকি দেয়। পরবর্তীতে উক্ত ব্যক্তি আমাকে বেকায়দায় ফালাইয়া আমার কাছ থেকে স্ট্যাম্পে ও সাদা কাগজে নেয়া স্বাক্ষরের কাগজ পত্র দিয়া তাহার সাথে আমার বিবাহ হইয়াছে বলিয়া এলাকায় প্রচার করে এবং সোনারগাঁও থানার বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়া সে আমার সাথে স্বামী স্ত্রী হিসেবে ঘর সংসার করে এবং সে জোরপূর্বক আমার সাথে দৈহিক মেলামিশা করিয়া আসিতেছিল এবং আমি এতে বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করিলে সে আমার ও আমার ছেলেদের উপর জুলুম অত্যাচার ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করিত এবং আমাদেরকে নির্মমভাবে খুন করিয়া আমাদের লাশ গুম করিয়া ফালাইবে বলিয়া হুমকি দিত। যার কারনে তাহার বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিতে সাহস পাইনি। পরবর্তীতে আমি কোন উপায় না পাইয়া উক্ত আবুল হোসেনকে তালাক দিলে সে আমার প্রতি ক্ষিপ্ত হইয়া পড়ে এবং গত ১১/০৭/২০২০ইং তারিখে রাত অনুমান ১১.০০টায় সোনারগাঁও থানাধীন ইসলামপুর এলাকায় তাহার সাথে আমার দেখা হইলে সে আমাকে খুন করার উদ্দেশ্যে সে আমাকে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটাইয়া এবং চা পাতি দিয়া মাথার মধ্যে কোপাইয়া মারাত্মকভাবে কাটাছেড়া জখম করিয়া গুরুতরভাবে আহত করে। পরে আমি তাহার বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিতে প্রস্তুতি নিলে সে আমার বড় ছেলে অলিউল্লাকে জিম্মি করিয়া রাখিয়াছে। যার কারনে আমি তাহার বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিতে পারিতেছি না এবং আইনের আশ্রয় নিলে সে আমাকে ও আমার ছেলেদেরকে খুন করিবে বলিয়া হুমকি দিয়া আসিতেছে যার কারনে তাহার ভয়ে চরম আতঙ্কের মধ্যে রহিয়াছি। সুত্র: লাইভ সোনারগাঁও

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »