শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে অসময়ে মাচায় তরমুজ চাষে সফল কৃষক: বাবু  দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমেদ হোসেন আর নেই ফুলপুরে মাস্ক না পড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা সোনারগাঁওয়ে পৌরসভার মেয়র প্রার্থী ঝরার নির্বাচনী প্রচারনা ও লিফলেট বিতরণ গণমাধ্যমকর্মীরা করোনাকালের নির্ভীক যোদ্ধা: তথ্যমন্ত্রী মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরোধ সৃষ্টি ষড়যন্ত্রের অংশ: এম এ আউয়াল মঙ্গলবার থেকে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু বাইডেন ২৪ নভেম্বর নতুন মন্ত্রী পরিষদের নাম ঘোষণা করবেন পুরনো রোলেই পরের শ্রেণিতে উঠবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা নাইজেরিয়ায় মসজিদে গুলিতে নিহত ৫, ইমামসহ ৪০ জনকে অপহরণ
শেরপুরে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

শেরপুরে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত 


ফটো-মো: আলমগীর হোসাইন

শ্রীবরদী-শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরে পালিত হয়েছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। শেরপুরে‘সমাজ বদলরে প্রত্যয়ে জঙ্গিবাদ,সাম্প্রদায়কিতা,দলবাজি ও র্দুনীতি প্রতিরোধ কর’এ শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতীয় সমাজতান্ত্রকি দল (জাসদ) এর ৪৮তম প্রতিষ্ঠািবার্ষিকী।১৯৭২ সালের এ দিনে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব প্রদানের অহংকারে গর্বিত বিপ্লবী তরুণ যুব সমাজের অগ্রগামী বৃহত্তর অংশ সামাজিক বিপ্লবের মাধ্যমে সমাজতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার দৃপ্ত প্রত্যয়ে ক্ষমতার সকল মোহ ত্যাগ করে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ গঠন করেন।এ দিন মুক্তিযুদ্ধের ৯নং সেক্টর কমান্ডার মেজর এমএ জলিল অব.এবং মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের তৎকালীন অন্যতম নেতা আ স ম আবদুর রবকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করে জাসদের প্রথম কমিটি ঘোষিত হয়।প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই জাসদ তৎকালীন ক্ষমতাসীন শাসক-শোষক-প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তীব্র গণআন্দোলনের সূচনা করে এবং শোষণ-বৈষম্য-অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। জাসদের এ সুদীর্ঘ সংগ্রামে হাজার-হাজার নেতা-কর্মী বিভিন্ন আমলে ক্ষমতাসীনদের দ্বারা নির্যাতিত-নিপীড়িত-ক্ষতিগ্রস্থ কারারুদ্ধ ও শহীদ হয়েছেন।বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে কোনো রাজনৈতিক দলের এত নেতা-কর্মীর আত্মবলিদান ও ত্যাগ স্বীকারের নজির নেই। জাসদ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিপ্লবী সংগ্রাম গড়ে তোলার পাশাপাশি ’৭৩ এর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে এবং উল্লেখযোগ্য ভোট পায়, বিজয়ী ঘোষিত হবার পরও ক’জন জাসদ প্রার্থীর বিজয় কেড়ে নেয়া হয়।’৭৫ সালে বাকশালে যোগদান না করায় জাসদ দলীয় সংসদ সদস্যদের সংসদ সদস্য পদ বাতিল করা হয়। । ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর খন্দকার মোশতাকের অবৈধ ক্ষমতা দখলের বিরুদ্ধেও জাসদ প্রতিরোধ গড়ে তোলে।’৭৫ এর নভেম্বরে উচ্চাভিলাষী সামরিক অফিসারদের ক্যু-পাল্টা ক্যুর বিরুদ্ধে কর্নেল তাহেরের নেতৃত্বে ৭ নভেম্বর মহান সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থান সংগঠিত করে। ৭ নভেম্বর সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থানের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে সামরিক শাসনের অবৈধ ক্ষমতা দখল ও সামরিক শাসনের বিরুদ্ধেও জাসদ প্রতিবাদী আন্দোলন ও প্রতিরোধ অব্যাহত রাখে।’৭৫ এর রাজনৈতিক পটপরিবর্তন পরবর্তীতে জাসদ ১৯৭৯-৮০ সালে ‘মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির ঐক্য ও পুনরুত্থান’এর লক্ষে একটি দীর্ঘ মেয়াদী রাজনৈতিক রণনীতি ও রণকৌশল গ্রহণ করে।৮২ তে এরশাদের ক্ষমতা দখল ও সামরিক শাসনের বিরুদ্ধেও জাসদ প্রতিবাদী আন্দোলন ও প্রতিরোধ গড়ে তোলে। ৮২-’৯০ পর্যন্ত সামরিক শাসন বিরোধী গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও ’৯০ এর গণঅভ্যুত্থানে অগ্রণী ভূমিকা রাখে।পরবর্তীতে ৯১-৯৬ সময়কালে সরকারের বিরুদ্ধেও জাসদ গণআন্দোলন পরিচালনা করে। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত জাসদ আওয়ামী লীগের সাথে ঐকমত্যের সরকারে আবস্থান করলেও সংসদের ভেতরে-বাইরে জনগণের অধিকার ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে আপসহীন ভূমিকা পালন করে। ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত জোট সরকারের দুঃশাসন ও ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার নীলনকশার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন গড়ে তোলায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।জাসদ এ ভূমিকার কারণে ঐক্য ও সংগ্রামের প্রতীকে পরিণত হয়। পরবর্তীতে ইয়াজউদ্দিন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নীলনকশার নির্বাচন প্রতিরোধে গণআন্দোলনে জাসদ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।পরবর্তীতে ১-১১’র ফখরুদ্দিন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জাসদ নির্বাচনী আইন সংস্কার ও নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি এবং সরকারের রাজনৈতিক বাড়াবাড়ি এবং সীমা লংঘনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা পালন করে। জাসদ ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে ১৪ দলগতভাবে অংশগ্রহণ করে ৩টি আসনে বিজয়ী হয়। সরকারে অংশগ্রহণ না করেও বাইরে থেকেই সরকারকে সমর্থন প্রদান করে। জাসদ সংসদের ভিতরে-বাইরে শ্রমিক-কৃষক-নারী ও জাতীয় স্বার্থ রক্ষা,গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেয়ার জন্য সোচ্চার ভূমিকা পালন করার পাশাপাশি জঙ্গীবাদ-মৌলবাদ-সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে রাজনৈতিক সংগ্রাম অব্যাহত রাখে। জাসদের এ দীর্ঘ সংগ্রাম ও আন্দোলনের বাঁকে বাঁকে জাসদের অনেক সু-প্রতিষ্ঠিত নেতাই রাজনৈতিকভাবে বিভ্রান্ত হয়ে দলত্যাগ করে জনগণের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে জনগণের বিপক্ষে দাঁড়ায়।বর্তমানে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু ও সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তারের নেতৃত্বে জাসদ তার সংগ্রামের ঐতিহ্যবাহী পতাকা বহন করে সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গীবাদের উচ্ছেদ, সুশাসন কায়েমের মাধ্যমে বৈষম্যহীন শোষনমুক্ত গণতান্ত্রিক সমাজ নির্মাণের লক্ষ্যে সংগ্রাম করে চলেছে। শেরপুরে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) এর ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছে। ১৯৭২ সাল থেকে ২০২০ পর্যন্ত জাসদ গৌরবোজ্জ্বল সংগ্রামের ৪৮ বছর অতিক্রম করতে যাচ্ছে। ফলে এবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর ডাক হলো-জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা কর, নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র রুখে দাঁড়াও,দুর্নীতি ও বৈষম্যের অবসান কর এবং সুশাসন ও সমাজতন্ত্রের পথে এগিয়ে যাও। এ উপলক্ষে শেরপুর জেলা জাসদ এর ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকীতে পৌর টাউন হল শেরপুরে স্বাস্ধ্যবিধি মেনে এক আলোচনা সভা পালিত হয়েছে। ওই কর্মসূচিতে শেরপুর  জেলায় পৌ টাউন হলে জাসদ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সকল নেতাকর্মী ও সমর্থকদের বেলা ৪ টার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অ্যাড: সাদিক হোসেন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় কমিটির জাসদ, বিশেষ অতিথি শফিকুল ইসলাম মিন্টু-সহ-সম্পাদক জাসদ কমিটি, সভাপতি: মনিরুজ্জামান লিটন সভাপতির শেরপুর জেলা জাসদ, সঞ্চালক আবুল হোসেন আবু যুগ্মসাধারণ সম্পাদক শেরপুর জেলা জাসদ আরো বক্তব্য রাখেন শাহ মোঃ  কহিনুর হোসেন  সভাপতি শ্রীবরদী উপজেলা শাখা জাসদ, মিজানুর রহমান মিজান সভাপতি ঝিনাইগাতী উপজেলা শাখা জাসদ,লাল মিয়া সভাপতি নালিতাবাড়ী উপজেলা শাখা। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের 48 তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ৩১অক্টোবর ২০২০ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) ৪৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। শেরপুর জেলা সদরে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও সমাবেশ আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সকল নেতাকর্মী ও জনসাধারণের উপস্থিতি বিশেষ ভাবে কামনা করছি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »