শিরোনামঃ
সোনারগাঁ আনন্দবাজারের ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রিজ স্থায়ী সেতু নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন এমপি খোকা  নরসিংদীতে শিবপুরে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ ৫ সন্তানের বাবাকে পেতে শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন প্রেমিকার! সাংবাদিক মাসুদের বিরুদ্ধে সেই দুর্ণীতিবাজ প্রধান শিক্ষকের জিডি নরসিংদীতে আখের চাহিদা ও দাম বেশি হওযায আখ চাষিদের মুখে সাফল্যের হাসি ফুটেছে আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে যাচ্ছে লাঙ্গল দিয়ে হাল চাষ ইলিশ ধরা বন্ধ থাকবে ৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিন শিশু সন্তানকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা নরসিংদীতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে কোটি টাকার বাণিজ্য ধানের ব্যাকটেরিয়াজনিত পাতা পোড়া রোগ

শিক্ষিকাকে ধর্ষণেরচেষ্টায় প্রধান শিক্ষক বহিষ্কার


ফটো-আবু সায়েম

আবু সায়েম: জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলায় এক সহকর্মী শিক্ষিকাকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বহিষ্কার হয়েছেন ফারুকুজ্জামান বিপ্লব নামে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। তিনি ইসলামপুর উপজেলার চরপুটিমারী ইউনিয়নের টাবুরচর শেখের পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ঐ বিদ্যালয়ের নির্যাতিতা শিক্ষিকা বিচার চেয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ও জেলা শিক্ষা অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ এর প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে সাময়িক ভাবে বহিষ্কার করা হয়। ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ শুক্রবার সকালে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, অতি শীঘ্রই সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেন।

এরই ধারাবাহিকতার পরিপ্রেক্ষিতে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো ঐ বিদ্যালয়েও প্রস্তুতি চলছিল। গত বুধবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফারুকুজ্জামান বিপ্লব চরপুটিমারী ইউনিয়নের টাবুরচর শেখের পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আসেন। সেই দিন ঐ বিদ্যালয়ে কর্মরত অভিযোগকারী সেই সহকারী শিক্ষিকাও আসেন। এসময় তাকে একা পেয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফারুকুজ্জামান বিপ্লব বিদ্যালয়ের রুমে ধর্ষণচেষ্টা করেন।

এ ঘটনায় উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ ফেরদৌস ঘটনার সত্যতা শিকার করে গণমাধ্যমকে বলেন, বৃহস্পতিবার প্রাথমিক পর্যায়ে তদন্ত করে আমরা অভিযুক্ত অভিযোগের সত্যতা পাই। পরে বিষয়টি আমরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ডিপিও) স্যারকে জানাই এবং ঐ শিক্ষিকাকে স্যারকে নিকট পাঠাই।

সূত্রে আরও জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফারুকুজ্জামান ঐ সহকারী শিক্ষিকাকে দীর্ঘ দিন যাবত উত্যাক্ত করে আসছিল। ঘটনাটি ভোক্তভোগী শিক্ষিকা ক্লাস্টার এটিওকেও ইতিপূর্বে জানিয়েছেন। কিন্তু তিনি এতে কোন প্রকার প্রশাসনিক সহযোগিতা ও বিচার পাননি।

অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফারুকুজ্জামানের সাথে মোবাইল ফোনে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও তাকে পাওয়া যায় নি। তিনি ফোন বন্ধ করে রাখেন। জামালপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক এই বিষয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিককে সাময়িক ভাবে বহিষ্কার করেছি। তিন সদস্য তদন্ত কমিটি করেছি। বিষয়টি তদন্ত করে সত্যতা প্রমাণিত হলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

লাইক ও শেয়ার করে পাশে থাকুন..........
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »