শিরোনামঃ
নরসিংদীতে জেলা কারাগারে ২৫০০ টাকায় মিলে ১ কেজি গরুর মাংস চরম ভোগান্তিতে আসামীরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার নিয়ে কিছু কথা আজ দেবীর বোধন কাল মহাষষ্ঠী রূপগঞ্জের দাউদপুর ইউপি নির্বাচন পরবর্তি সহিংসতায় প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা আহত-৫ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রথম নির্মিত শহীদ মিনার বৌমার সন্তান না হওয়ায় নিজেই গর্ভবতী হলেন শাশুড়ি! যশোরের ঝিকরগাছায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কলেজ ছাত্র নিহত অগ্নিবীণা ক্রীড়া ও যুব সংঘের পক্ষ থেকে আবু নাইম ইকবালকে ফুলেল শুভেচ্ছা এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তা করায় এসআই হাসান বরখাস্ত হালদায় ৯ কেজি ওজনের আঘাতপ্রাপ্ত মৃত মা মাছ উদ্ধার
রাজধানীর হাতিরঝিল থেকে উদ্ধার হওয়া হাত-পা বাঁধা

রাজধানীর হাতিরঝিল থেকে উদ্ধার হওয়া হাত-পা বাঁধা মরদেহের পরিচয় মিলেছে


দেশের গর্জন ফটো

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আজিজুল ইসলাম মেহেদী চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার বাউরিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড মহব্বত খার বাড়ির ফখরুল ইসলামের একমাত্র ছেলে ও চট্টগ্রামের ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী রাজধানীর হাতিরঝিল থেকে উদ্ধার হওয়া হাত-পা বাঁধা মরদেহের পরিচয় মিলেছে। নিহত আজিজুল ইসলাম মেহেদী (২৪) চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তার পরিবারের অভিযোগ, মেহেদী চট্টগ্রাম থেকে পাসপোর্ট তৈরির কাজে ঢাকায় এসেছিলেন। দালাদের খপ্পরে পরেই তিনি খুন হয়েছেন। পুলিশ বলছে, এ বিষয়ে তদন্ত চলমান রয়েছে, তদন্ত শেষে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। সোমবার হাতিরঝিলের রামপুরা অংশের লেক থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে মরদেহ পাঠানো হয়। মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) ঢামেক হাসপাতালের মর্গে এসে নিহত ব্যক্তিকে আজিজুল ইসলাম মেহেদী বলে শনাক্ত করেন তার পরিবারের সদস্যরা। পরে এ বিষয়ে মামলা দায়ের করতে তারা হাতিঝিল থানায় যান। পরিবারের সদস্যরা জানান, আজিজুল ইসলাম মেহেদী চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার বাউরিয়া গ্রামের ফখরুল ইসলামের একমাত্র ছেলে। তিনি চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। মরদেহ শনাক্ত করতে এসে মেহেদীর পরিবারের সদস্যরা জানান, গত শনিবার (১০ অক্টোবর) বিকেল পাঁচটার দিকে চট্টগ্রাম থেকে পাসপোর্ট তৈরির কাজের কথা বলে ঢাকায় আসেন মেহেদী। পরে বনশ্রী এলাকায় তার বন্ধুর বাসায় ওঠেন। রোববার ভোরে বন্ধুর বাসা থেকে বের হয়ে যান, এরপর থেকেই মেহেদীর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। তার ফোন নম্বরও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। সোমবার পুলিশের মাধ্যমে মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি জানতে পারেন পরিবারের সদস্যরা। মঙ্গলবার ঢামেক মর্গে এসে মরদেহ শনাক্ত করেন তারা। নিহত আজিজুল ইসলাম মেহেদীর খালাতো ভাই মো. শাকিল বলেন, মেহেদী লেখাপড়ার পাশপাশি পরিচিতদের পাসপোর্ট তৈরির কাজ করে দিতো। পরিচিত কারো পাসপোর্টের কোনো সমস্যা থাকলে সে বিভিন্ন জায়গায় দৌড়াদৌড়ি করে ঠিক করে দিতো। পাসপোর্টের কাজেই মেহেদী ঢাকায় এসেছিলো। কে বা কারা তাকে এভাবে হত্যা করেছে তা বলতে পারছি না। তিনি আরও বলেন, আমরা ঢামেকে এসে জানতে পেরেছি তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। আমাদের ধারণা, সে পাসপোর্টের কাজে এসে দালালদের খপ্পরে পড়েছে। কোনো কারণে দালালের হাতেই তার মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে হাতিরঝিল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হচ্ছে বলে জানান নিহত মেহেদীর খালাতো ভাই শাকিল। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) হাফিজ আল ফারুক বলেন, বিষয়টি আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। আমাদের তদন্ত চলমান রয়েছে। আশা করি দ্রুত রহস্য উদঘাটন হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »