শিরোনামঃ
নরসিংদীতে জেলা কারাগারে ২৫০০ টাকায় মিলে ১ কেজি গরুর মাংস চরম ভোগান্তিতে আসামীরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার নিয়ে কিছু কথা আজ দেবীর বোধন কাল মহাষষ্ঠী রূপগঞ্জের দাউদপুর ইউপি নির্বাচন পরবর্তি সহিংসতায় প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা আহত-৫ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রথম নির্মিত শহীদ মিনার বৌমার সন্তান না হওয়ায় নিজেই গর্ভবতী হলেন শাশুড়ি! যশোরের ঝিকরগাছায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কলেজ ছাত্র নিহত অগ্নিবীণা ক্রীড়া ও যুব সংঘের পক্ষ থেকে আবু নাইম ইকবালকে ফুলেল শুভেচ্ছা এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তা করায় এসআই হাসান বরখাস্ত হালদায় ৯ কেজি ওজনের আঘাতপ্রাপ্ত মৃত মা মাছ উদ্ধার
মালয়েশিয়ায় বাড়ছে অবৈধের সংখ্যা

মালয়েশিয়ায় বাড়ছে অবৈধের সংখ্যা


ফটো-সিকদার মোহাম্মদ শাহ আলম

সিকদার মোহাম্মদ শাহ আলম: চলমান কভিড ১৯ শুরু হওয়ার পর থেকেই মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিকের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত ১৮ মার্চ ২০২০ ইং তারিখ থেকে মালয়েশিয়ায় শুরু হয় মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার। বন্ধ হয় বৈশ্বিক যোগাযোগ এর মধ্যেই শেষ হয় অনেকের ভিসার মেয়াদ। কেউবা পূর্ণ করেছেন ওয়ার্ক পারমিটের দশ বছর। উল্লেখ্য মালয়েশিয়েন অভিবাসী আইন অনুযায়ী কারোর ভিসার মেয়াদ দশ বছর পূর্ণ হলে তিনি আর মালয়েশিয়োয় থাকতে পারবেন না। তবে নাজিব রাজাক ক্ষমতায় থাকা কালিন এ মেয়াদ বার বছর পর্যন্ত উত্তীর্ণ করেছিলেন। পরবর্তীতে মাহাথির মুহাম্মদ সরকার গঠন করলে এ আইন বাতিল করেন। দশ বছর শেষ হোক আর লকডাউনে পরেই হোক অনেকেই এখন ভিসার জটিলতায় হয়েছেন অবৈধ। এ ব্যাপারে একজন ভুক্তভোগী আলে মাগার এক নেপালী নাগরিকে কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন – “আমার ভিসার মেয়েদ ছিল ২৫ মার্চ ২০২০ ইং তারিখ পর্যন্ত। কোম্পানি আমার জন্য টিকিটও কিনেছিল। আমার ফ্লাইটের তারিখ ছিল ২২ মার্চ ২০২০ ইং তারিখে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে আমাকে হতে হয়েছে অবৈধ। কোম্পানি আমাকে প্রতি মাসে তারিখ দিচ্ছে আর পরিবর্তন করছে। আমি জানিনা কবে যেতে পারব দেশে? তাছাড়া এখন গুনতে হবে বাড়তি বিমান ভাড়া। ” ঠিক একইভাবে অবৈধ হন দমা শরমা নামের আরেক নেপালী। মালয়েশিয়ার পাহাং জেলার তেমোরলো থানার সংসেং এলাকায় কাঠের ফ্যাক্টরীতে কাজ করেন সাহাবুদ্দিন ও মুরাদ। তাদের ভিসা নবায়নের তারিখ ছিল ১৮ মার্চ ২০২০ ইং তারিখে। কিন্তু তাদের ফ্যাক্টরির সকলে পাসপোর্ট সময় মত জমা দিতে পারলেও সাহাবুদ্দিন ও মুরাদ জমা দিতে পারেননি। করণ জানতে চাইলে মুরাদ বলেন – “আমাদের পাসপোর্টের মেয়াদ একবছরের কম থাকায় আমরা আমাদের পাসপোর্ট নবায়ন করতে দেই চলতি বছরের জানুয়ারির শেষের দিকে। পাসপোর্ট একমাসের মধ্যে হাতে পাওয়ার কথা থাকলেও পাসপোর্ট পাই জুন মাসে। এরই মধ্যে মধ্যে আমরা অবৈধ হয়ে যাই। তবে মালয়েশিয়ার সরকার ঘোষণা দিয়েছিল যে, মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডারের মধ্যে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হবে তাদের ভিসা নবায়ন করতে কোন সমস্যা হবেনা। কিন্তু আমাদের মত অনেকেই আর ভিসা নবায়ন করতে পারেনি। মালিক পক্ষ যদি অভিবাসন বিভাগে গিয়ে উপযুক্ত কারণ দেখাতে পারে তাহলে আমাদের ভিসা হওয়া সম্ভাবনা ছিল। ” কভিড ১৯ পরিস্থিতিতে লক ডাউন ও আরো বিভিন্ন কারণে অনেকে হয়েছেন অবৈধ। এখন অনেকে শ্রমিকই চরম খারাপ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তারা কেউ জানেন না তাদের আসলেই ভবিষৎ কি!

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »