ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে বিএনপি ও স্বতন্ত্র

ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ভোট বর্জন


দেশের গর্জন ফটো

গর্জন ডেস্কঃ সাতক্ষীরার কলারোয়া পৌর নির্বাচনে নজিরবিহীন ভোট কারচুপি, এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া, ভোটারদের কাছ থেকে ব্যালট কেড়ে নিয়ে নৌকা প্রতীকে সিল মারা ও নৌকা প্রতীকে সিল মারা ব্যালট সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সব অভিযোগ এনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী শরিফুজ্জামান তুহিন এবং স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নার্গিস সুলতানা ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

 

এ ছাড়া ৩নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আসাদ খান, কাউন্সিলর প্রার্থী রফিকুল ইসলাম ও মোজাহিদুল ইসলাম ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

এদের মধ্যে বিএনপির মেয়র প্রার্থী শরিফুজ্জামান তুহিন ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নার্গিস সুলতানা তাদের নিজ কার্যালয়ে পৃথক সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

 

স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নার্গিস সুলতানা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তার এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ভোটারদের কাছ থেকে ব্যালট কেড়ে নিয়ে নৌকা প্রতীকে সিল মারা হচ্ছে এবং কোথাও কোথাও নৌকা প্রতীকে সিল মারা ব্যালট সরবরাহ করা হচ্ছে।

 

অপরদিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী শরিফুজ্জামান তুহিনও একই ধরনের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়ে বলেন, তিনি প্রতিকার চাইতে উপস্থিত ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সহযোগিতা চাইলেও তাকে সহযোগিতা করা হয়নি। বরং মারধর করে বের করে দেওয়া হয়েছে।

 

নির্বাচনে পৌর এলাকার ৯টি কেন্দ্রে ২১ হাজার ২৮০জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। কলারোয়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচজন প্রতীক পেলেও সাবেক মেয়র গাজী আক্তারুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মজনু চৌধুরী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

 

এর পর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন নৌকা প্রতীকের মনিরুজ্জামান বুলবুল, ধানের শীষের শেখ শরিফুজ্জামান তুহিন ও সাবেক মেয়র গাজী আক্তারুল ইসলামের স্ত্রী জগ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী নার্গিস সুলতানা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »