শিরোনামঃ
কওমী মাদরাসা লকডাউনের আওতামুক্ত রাখার দাবি হেফাজতের টাঙ্গাইলে দুই সন্তানের জননী মল্লিকা বেগমের আত্মহত্যা নরসিংদীতে করোনা মোকাবেলায় সংবাদকর্মী রুদ্র এর পক্ষ থেকে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ জনকণ্ঠ ভবনের মূল ফটকে তালা, ভবনের সামনের রাস্তায় অবস্থান নিয়েছেন সাংবাদিকরা শার্শায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তার খামখেয়ালীপোনায় ২য় ডোজ টিকা নিয়ে বিপাকে ভূক্তভোগীরা বার্সাকে হারিয়ে শীর্ষে রিয়াল চলমান করোনা নিষেধাজ্ঞা ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে মিয়ানমারের বাগো শহরে সামরিক বাহিনীর গুলিতে নিহত ৮০ ছাড়িয়েছে গজারিয়ায় জাটকাবাহী ট্রলার ও জাটকা সহ ৪ জন আটক, কারাদণ্ড করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেননি খালেদা জিয়া
ভাড়া করা কল*গা*র্ল হিসাবে এলেন নিজেরই স্ত্রী 

ভাড়া করা কল*গা*র্ল হিসাবে এলেন নিজেরই স্ত্রী 


দেশের গর্জন ফটো

গর্জন ডেস্কঃ উত্তরাখণ্ডের শিল্প নগরী কাশীপুর সম্প্রতি সেখানকার একটি চাঞ্চ’ল্যকর ঘটনা সামনে উঠে এসেছে যা স্বামী-স্ত্রী’র স’ম্পর্কের ম’র্যাদাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। শহরে বসবাসরত এক যুবকের স্ত্রী’ বিয়ের পরেও শ্বশুরবাড়িতে বাস করছিলেন না। মেয়েটি তার বাপের বাড়ি থাকত। এদিকে, যুবক জানতে পারেন তার স্ত্রী’ একজন কল’গার্ল তা জানতে পেরে হতবাকও হন তিনি। কিন্তু মন মানতে চাইছিল না, শেষে যুবকটি সিদ্ধান্ত নেয় এই বিষয়ে সত্যতা খুঁজে বের করার। তিনি দালা’লের নাম্বারে ফোন করেন এবং তারপর হোয়াটসঅ্যাপে কল’গার্লকে কল করেছিলেন, তার স্বামী কল’গার্ল হিসাবে তাঁর সামনে এসে উপস্থিত মেয়েটিকে দেখে হতবাক হয়ে যান। যুবকের স্ত্রী’ কল’গার্ল হয়ে তাঁর সামনে এসে দাঁড়ান। দুজনেই প্রতা’রণার শিকার হয়েছেন। স্বামী-স্ত্রী’র মধ্যে কো’ন্দল হয়। এখন দুজনেই একে অ’পরের বি’রুদ্ধে পু’লিশ রি’পোর্ট করেছেন। এই বিষয়টি বর্তমানে মা’মলার বিষয় হিসাবে রয়ে গেছে। যুবক দীনেশপুরের বাসিন্দা। কয়েক বছর আগে আইটিআই থা’না এলাকায় বসবাসকারী এক মহিলার সাথে তার বিয়ে হয়েছিল, কিন্তু মেয়েটি শ্বশুরবাড়িতে নয়, তার বাপের বাড়ি থাকত। মেয়েটির একটি বান্ধবীও রয়েছে। কিছুদিন আগে মেয়েটির বান্ধবীর সাথে মা’রামা’রি হয়েছিল। যার পরে মহিলার বান্ধবী স্বামীকে ফোন করে তার স্ত্রী’র কল’গার্ল স’ম্পর্কে অবহিত করেন। যুবকটি আরও জানতে পেরেছিল যে তার স্ত্রী’ শ্যামাপুরমে বসবাসকারী এক মহিলার মাধ্যমে কাজ করে। বান্ধবীই তাকে দালা’লের নাম্বার দিয়েছিল। যুবকটি দালা’লের কাছে গেলে তিনি যুবকের কল’গার্লের ফটো হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়েছিলেন, যুবকের স্ত্রী’র ছবি সহ। যুবক তার স্ত্রী’র ছবি পছন্দ করে চুক্তিটি নিশ্চিত করেন। মেয়েটি নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে যায়, কিন্তু সেখানে একজন গ্রাহক হিসাবে তার স্বামীকে দেখে তার পায়ের নিচের মাটি সরে যায়। দ্বন্দ্বের পরে দুজনের মধ্যে ল’ড়াই হয়। বিষয়টি পু’লিশে পৌঁছেছে। ভুক্ত’ভোগী স্বামী এসপি রাজেশ ভট্ট’কে তার যন্ত্র’ণার কথা জানিয়েছিলেন, আর স্ত্রী’ স্বামীর সাথে তার বান্ধবীর স’ম্পর্কের অ’ভি’যোগ করেছেন। বিষয়টি এখন পু’লিশের কাছে, এএসপি মা’মলার তদ’ন্তের জন্য বলেছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »