বাজিতপুরে আ.লীগ-বিএনপি লড়াই

বাজিতপুরে আ.লীগ-বিএনপি লড়াই


ফটো-প্রতীক

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর পৌরসভা নির্বাচন ১৪ ফেব্রুয়ারি। নির্বাচন ঘিরে পৌর এলাকাজুড়ে এখন উৎসবমুখর পরিবেশ। ভোটাররা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন।

এবার মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের বাজিতপুর উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান পৌর মেয়র মো. আনোয়ার হোসেন আশরাফ, বিএনপির পৌর আহ্বায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র মো. এহেসান কুফিয়া এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা জমির উদ্দিন। তবে ভোটের লড়াই আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে বলে মনে করছেন ভোটাররা।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন আশরাফ বলেন, আবার নির্বাচিত হলে পৌরসভাকে আরও আধুনিক ও ক্লিন পৌরসভায় রূপান্তরিত করার ইচ্ছা রয়েছে।

বিএনপির প্রার্থী মো. এহেসান কুফিয়া জানান, নির্বাচনী প্রচারে বাধা, প্রার্থী সমর্থকদের বাড়িতে হামলা-মারধর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর এবং প্রশাসনের অসহযোগিতায় নির্বাচনী প্রচারে তিনি পিছিয়ে আছেন। মামলা হামলার ভয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রচার কাজ করতে পারছেন না বলেও জানান তিনি ।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মাওলানা জমির উদ্দিন জানান, এ পর্যন্ত সুন্দরভাবেই প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তিনি বলেন, পোস্টার, মাইকিংসহ বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার চালাচ্ছেন। একটি অবাধ ও সুষ্ঠু পরিবেশের নির্বাচন আশা করছেন তিনি।

রিটার্নিং অফিসার ও বাজিতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপ্তিময়ী জামান জানান, অন্য কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় পৌরসভার ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে মোছা. সেলিনা আক্তার খানম ও সাধারণ ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে মো. কামাল খানকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।

বাজিতপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা খন্দকার জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, বাজিতপুর পৌরসভায় মেয়র, সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে মোট ৪৩ জন প্রার্থী। ১২ কেন্দ্রে ৬৯ বুথে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ চলবে। এ পৌরসভায় মোট ভোটার ২৪ হাজার ৮১২ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১২ হাজার ১৫০ এবং নারী ১২ হাজার ৬৬২ জন।

উল্লেখ্য, ১৮৬৯ সালে বাজিতপুর পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর আয়তন ৯ দশমিক ৮৪ বর্গকিলোমিটার। এটি একটি প্রাচীন দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসভা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »