বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেট দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার

বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেট দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ: মুফতী ফয়জুল করীম


ফটো-সংগৃহীত

গর্জন ডেস্কঃ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই বলেছেন, বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেট, ফলে দ্রব্যমূল্যে নিয়ন্ত্রণে সরকার চরমভাবে ব্যর্থ হযেছে। চাল ও ভোজ্য তেলের বাজার নিয়ন্ত্রণহীনভাবে বেড়ে চলছে। যেন দেখার কেউ নেই।

এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না। তিনি অবিলম্বে চাল, ভোজ্য তেল, আটার মূল্য নিয়ন্ত্রণসহ বাজার সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন।

আজ বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ কার্যালয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মজলিসে আমেলার এক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন ও অধ্যাপক মাহবুুবুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম ও ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারি মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কাদের, অধ্যক্ষ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ ও মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক কেএম আতিকুর রহমানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, চাল ও ভোজ্য তেলের বাজার লাগামহীনভাবে বেড়ে চলছে। সেইসাথে আটা, ময়দামহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের দামও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। ভরা মৌসুমে চালের মূল্যবৃদ্ধির কোনও যৌক্তিক কারণ নেই। তারপরও দফায়-দফায় চালের মূল্য বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষ চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন। সরকার খোলা তেলের মূল্য নির্ধারণ করে দিলেও মালিকরা তা মানছেন না।

তিনি বলেন, মুনাফাখোর, অসৎ বাজার সিন্ডিকেট, অন্যদিকে চাতালের মালিকদের কারসাজির ফলে লাগামহীনভাবে চালের মূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘাটতির অজুহাত দেখিয়ে তেল নিয়ে ভয়াবহ সিন্ডিকেট চলছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারি ব্যবস্থা বলতে বাস্তবে কিছু নেই। এতে অসৎ ব্যবসায়ীরা স্বেচ্ছাচারীভাবে প্রায় প্রতিটি জিনিসের মূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলছে। তিনি সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রণের দাবি জানান।

ধানমন্ডির আর-রহমান মসজিদ ভেঙ্গে দেয়ায় ইসলামী আন্দোলনের প্রতিবাদ
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম ও সেক্রেটারী আলহাজ্ব আব্দুল আউয়াল মজুমদার এক যুক্ত বিবৃতিতে ঢাকা দ¶িণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) অভিযানে একের পর এক মসজিদ ভাঙার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন।

আজ এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ধানমন্ডি লেকের ভেতরে থাকা আর রহমান জামে মসজিদটি গত ২ ফেব্রুয়ারি সকালে বুলডোজার দিয়ে ভেঙে দিয়ে ডিএসসিসি’র মেয়র ব্যারিস্টার তাপস অত্যন্ত গর্হিত কাজ করেছেন। এতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ও এলাকাবাসী চরমভাবে ব্যথিত ও মর্মাহত হয়েছেন।

তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য সারা দেশে মসজিদ নির্মাণ করে চলেছেন। সেসব মসজিদে শুধু নামাজ আদায় নয়, ইসলামি গবেষণা, সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে রূপান্তর করা হচ্ছে। তারা অবিলম্বে মসজিদ পুননির্মাণের জোর দাবি জানান।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »