শিরোনামঃ
ছাতকে নৌ-পথে চাঁদাবাজি বন্ধে থানায় মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত ত্রিশালে পৌর নৌকার মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব নবী নেওয়াজ সরকারের মত বিনিময় সোনারগাঁয়ে ব্রাদার্স ফাউন্ডেশনের প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচে ইয়াং স্টারের জয়লাভ নরসিংদীতে আলোকবালীতে শীতার্তদের মাঝে কম্বলসহ সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ নরসিংদীতে শিবপুরে ডিবির হাতে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ ৪ জন গ্রেফতার শার্শায় অভিনব কায়দায় নবজাতক শিশু চুরি নরসিংদীর শিবপুরে শহীদ আসাদের ৫২তম মৃত্যুবার্ষিকী ২০ জানুয়ারী (বুধবার) পালিত ৩ বছর পেরিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পাঠকমেলা জীবননগরে আর নয় বাল্যবিবাহ-এস এম মুনিম লিংকন কয়েক ঘণ্টা পরেই বাইডেনের অভিষেক
বন্দরে তরুনী ধর্ষনে শিকার গ্রেফতার নেই

বন্দরে তরুনী ধর্ষনে শিকার গ্রেফতার নেই


দেশের গর্জন ফটো

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নানীর বাড়িতে সেভেনআপ নিয়ে আসে দুই মামাতো ভাই ও তাদের এক খালাতো ভাই। সেই সেভেনআপ পান করতেই ঘুমিয়ে পড়েন নানী। একইভাবে ঘুম ঘুম লাগছিল স্কুল পড়ুয়া ফুফাতো বোনেরও। এমন অবস্থায় তিনজন মিলে টেনে হেঁচড়ে পাশের রুমে নিয়ে যায় মেয়েটিকে। এরপর দুইজন তার হাত ধরে রাখে। আর জাহিদ নামে তারই এক মামাতো ভাই ধর্ষণ করে কিশোরী মেয়েটিকে। গতকাল সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে আদালতে হাজির হয়ে নানী বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হওয়া কিশোরী এভাবেই বর্ণনা দেয়। নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুনের আদালতে ২২ ধারায় এই কিশোরীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। অভিযুক্ত জাহিদ (২১) বন্দরের নবীগঞ্জ বড় বাড়ি এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে। এ ঘটনায় সহযোগিতা করেছে জাহিদের ছোট ভাই আসিফ ও তাদের খালাতো ভাই রোহান। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, করোনার কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় গত ১৮ সেপ্টেম্বর বন্দর উপজেলার নবীগঞ্জ এলাকায় নানী বাড়িতে বেড়াতে যায় অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মেয়েটি। গত ৩ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার বাড়ি ফাঁকা পেয়ে দুই ভাইয়ের সহযোগিতায় মামাতো ভাই জাহিদ মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনার পরদিন গত ৪ অক্টোবর তিনজনকে আসামি করে বন্দর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ ও ধর্ষণের সহযোগিতার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন ধর্ষিতা মেয়েটির মা। অভিযোগে বাদী বলেন, আসামি জাহিদ অনেকদিন ধরে আমার মেয়েকে খারাপ কাজের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমার মেয়ে রাজি না হওয়ায় গত ৩ অক্টোবর আমার মা ও আমার মেয়েকে ঘুমের ওষুধ মেশানো সেভেনআপ পান করায় জাহিদ ও তার দুই ভাই। অচেতন হয়ে পড়তেই পাশের রুমে নিয়ে আমার মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে জাহিদ। আর আসিফ ও রোহান আমার মেয়ের হাত ধরে রাখে। এই সময় আমার মেয়ের ডাক-চিৎকারে প্রতিবেশী রমজান ও রহমান নামে দু’জন লোক এগিয়ে আসলে আসামিরা দৌড়িয়ে পালিয়ে যায়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »