বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ফুলপুর ও তারাকান্দা

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ফুলপুর ও তারাকান্দা সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মানববন্ধন


ফটো-তপু রায়হান রাব্বি

তপু রায়হান রাব্বি, ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদে ময়মনসিংহের ফুলপুর ও তারাকান্দায় সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানা গেছে, দুই উপজেলার কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে প্রশাসনিক(হলরুমে) মিলনায়তনে ১২ ডিসেম্বর রোজ শনিবার সকাল পৃথক পৃথক ভাবে এই দুই উপজেলায় নিন্দা ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ফুলপুরে বঙ্গবন্ধুর সম্মানরক্ষার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন উপজেলার নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার।

এসময় ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমারত হোসেন গাজী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নাসরিন আক্তার প্রমূখ। তারাকান্দায় প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জান্নাতুল ফেরদৌস।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙ্গার মাধ্যমে বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও সার্বভৌমত্বের উপড় হামলা করা হয়েছে। যিনি আজন্ম বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশের মানুষকে নিয়ে চিন্তা করেছেন। উনার ভাস্কর্য ভাঙ্গার মাধ্যমে যারা আইনশৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটানোর চেষ্টা করেছে, তাদের এই হেন কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এমন বাংলাদেশ কামনা করেননি জাতির পিতা।

প্রতিবাদ সভায় তারাকান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের বলেন, জাতির জনকের সম্মান রাখতে উনার প্রতি অবমাননাকর যে কোন ধরনের অপচেষ্টা শক্ত হাতে প্রতিহত করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মৎস্য অফিসার শাহানা নাজনীন, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিক, প্রাথমিক শিক্ষা নিলুফার হাকিম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাকারিয়া আলম তালুকদার, সমাজসেবা কর্মকর্তা রুবেল মন্ডল, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা রমিজ উদ্দিন আলম, বক্শীমূল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূরুল হুদা দুলাল, তারাকান্দা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুজ্জামান সরকার বকুল প্রমুখ।

দুই উপজেলার সকল স্তরের সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ সহ সংবাদ কর্মীগণ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »