শিরোনামঃ
নরসিংদীতে ঘোড়াশালে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলামের দাফন সম্পন্ন বাপ্পারাজ-সম্রাটসহ পরিবারের ছয় সদস্য করোনায় আক্রান্ত হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন রুহুল কবির রিজভী চলমান কাজ শেষ হলে পরবর্তী কাজ পাবেন ঠিকাদার: প্রধানমন্ত্রী বাবার সেবা করতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ফারুকের মেয়ে পাইকগাছায় প্রতারক চ্ক্র গ্রুপের প্রতারনা ও মানব পাচার আইনে মামলা স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার পাইকগাছায় ছাত্রনেতাসহ ৩ জনে অতিরিক্ত মদ‍্যপানে মৃত্যু-১ রূপগঞ্জে উপজেলা ছাত্রলীগের আলোচিত মুখ ইমন নরসিংদীতে আরও ৫ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট শনাক্ত ২৫৯৫ ঠাকুরগাঁওয়ে আদিবাসীদের ৩ দফা দাবিতে মানববন্ধন
ফুলপুরে জঙ্গলে জুয়ার আসর দেখার কেউ নেই

ফুলপুরে জঙ্গলে জুয়ার আসর দেখার কেউ নেই কী গ্রামবাসীর অভিযোগ


ফটো-তপু রায়হান রাব্বি

তপু রায়হান রাব্বি, ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বওলা বালিয়ার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় জঙ্গলে জঙ্গলে চলছে জমজমাট জুয়ার আসর।পুলিশের নজর এড়াতে সংঘবদ্ধ জুয়ারিরা গ্রামের ফাঁকা মাঠ,বাঁশঝাড়,ঝোপ-জঙ্গল সহ চিহ্নিত স্থানগুলোতে পরিচালনা করছে জুয়া।তাস,মোবাইল,লুডুসহ বিভিন্ন খেলার মাধ্যমে পরিচালিত হওয়া এসব জুয়ার আসরে গুটি কয়েক ব্যাক্তি লাভবান হলেও নিঃস্ব হচ্ছে অধিকাংশ মানুষজন।সেই সাথে জুয়ার টাকা জোগাড় করতে উঠতি বয়সী যুব সমাজ ও নিম্ম আয়ের মানুষ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে,নষ্ট হচ্ছে এলাকার পরিবেশ। উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের উত্তরকান্দা ওয়াল্ড ভিশন স্কুলের পেছনের জঙ্গলে মইসাউনদা বাজারে পাশে মিরাস উদ্দিনের মিলের পিছনে নদীর পাড় কাইচাপুর খড়িয়াপাড়া,বওলার পুরান নগর নাপীত পাড়া, আসিবিলের পাড়,হাতীবান্ধা পাল বাড়ি সংলগ্ন জঙ্গলে সহ বেশ কয়েকটি স্পটে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে জঙ্গলে জঙ্গলে বাঁশের ঝোপের আড়ালে,ও বাজারে প্রতি দিন রাত বসে জুয়ার আসর।এই জুয়ার আসরে প্রতি রাতে লক্ষ লক্ষ টাকার খেলা হয়।এসব এলাকায় বেড়েছে মাদক,ছিনতাই ও চোরের উৎপাত সেই সঙ্গে মাদকের আড্ডাও।।নষ্ট পথে পা বাড়াচ্ছে আশেপাশের এলাকার যুব সমাজ। এলাকার রাজনৈতিক প্রভাবশালী কয়েকজনের নেতৃত্বেই র্দীঘদিন ধরে উক্ত এলাকায় চলছে অপকর্ম ও জুয়ার আসর।যার ফলে এলাকার তরুণদের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ ধ্বংস হচ্ছে।এবিষয়ে যারাই প্রতিবাদ করেছে তাদের রাজনৈতিক ভাবে প্রভাবশালী একটি মহল নানা রকম হুমকি গালিগালাজ দিয়ে থাকে তাই প্রাণভয়ে কেউ কিছুই বলার সাহস পাচ্ছে না। সামনে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসার কারণে ভোটের ভয়ে জুয়ার বিষয় অবগত হয়েও জনপ্রতিনিধিরা কিছু বলেন না।তাই জুয়ারিরা জনপ্রতিনিধিসহ ভোট দূর্বলতাকে পুঁজি করে পুলিশের চোখকে ফাঁকি দিয়েই চালিয়ে যাচ্ছে জুয়ার আসর।স্থানীয় ইউপি সদস্যরাও এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের কাছেও মুখ খুলতে নারাজ। স্থানীয়রা জানান,এসব এলাকায় রাতে নিরব জুয়া খেলা হয়।ঝোপঝাড় আর জঙ্গলে ভরপুর,রাস্তা খারাপ,বৃষ্টির দিনে পুলিশের পিকাপ ঢোকেনা।তাই জুয়ারি, মাদকসেবী আর চোরের কাছে রাতের বেলায় নিরাপদ অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। গত দুই বছরে এই জুয়ার আসর চালানোর কল্যাণে লাখ টাকার মালিক বনে গেছে বেশ কয়েকজন।তবে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলছে না।রহস্যজনক কারণে স্থানীয় প্রশাসনও এ ব্যাপারে নির্বিকার। জুয়ারি চক্রটি পুলিশের চোঁখ ফাকি দিতে বিভিন্ন পয়েন্টে তাদের মোবাইল সোর্স বসিয়ে রেখে পুলিশের প্রতি নজর রাখে।যখন থানা পুলিশ জুয়ার আসরে মোভ করে তখন তাদের সোসর্রা মোবাইল ফোনে পুলিশের উপস্থিতির কথা জানিয়ে দেয়।তখন জুয়ারিরা আসর ভেঙ্গে চলে যায়।প্রত্যেকটা স্পটে তাদের মোবাইল সোর্স নিয়োজিত থাকে,জুয়ার আসরের ফলে এলাকার উঠতি বয়সের যুব সমাজ তাদের নৈতিকতা হারাচ্ছে।এলাকায় গরু চুরি রাহাজানি বৃদ্ধি পেয়েছে।স্থানীয় এলাকাবাসী জুয়ার আসর গুলো বন্দের জন্য আইনশৃংখলা বাহিনী জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। ছবি এলাকার সচেতন নাগরিক এর কাছ থেকে সংগৃহীত।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »