জাতীয় পার্টি নেতাকে হত্যার পর মাটিচাপা দেয়

জাতীয় পার্টি নেতাকে হত্যার পর মাটিচাপা দেয় রোহিঙ্গা কর্মচারী


ফটো-সংগৃহীত

লোহাগাড়া প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতা আনোয়ার হোসেনের (৪২) গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর নিখোঁজ হন। নিখোঁজের এক মাস পর গতকাল শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) রাত দেড়টায় তার গলিত উদ্ধার করেছে পুলিশ। লোহাগাড়ার দরবেশহাট সওদাগরপাড়া নিজ বাড়িসংলগ্ন খামারবাড়িতে তাকে হত্যা করে লাশ মাটিচাপা দিয়েছিল খামারের রোহিঙ্গা কর্মচারী।

এ ঘটনায় এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করার পর তার দেওয়া তথ্যমতে খামার বাড়ির পেছন থেকে মাটি খুঁড়ে লাশটি উদ্ধার করেছে বলে জানান লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. রাশেদ। আনোয়ার লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের মৃত আহমদ সওদাগরের ছেলে। পেশায় তিনি গরু ব্যবসায়ী ছিলেন। তার গরুর খামার রয়েছে।

জানা গেছে, খামার বাড়িতে গরু দেখভাল করত দুই রোহিঙ্গা যুবক। নিখোঁজের কিছুদিন আগে রোহিঙ্গা কর্মচারীদের সঙ্গে আনোয়ারের ঝগড়া হয়। হয়তো সে ক্ষোভ থেকে আনোয়ারকে হত্যা করেছে বলে ধারণা করছেন স্বজনরা।

পুলিশ জানায়, জাকারিয়া রহমান হত্যাকাণ্ডে দুই রোহিঙ্গা যুবকে আমরা চিহ্নিত করেছি। ইতোমধ্যে টেকনাফের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে একজনকে আটকের পর সে জিজ্ঞাসাবাদে আনোয়ারকে হত্যার কথা স্বীকার করে এবং তার দেখানো মতে শুক্রবার মধ্যরাতে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

 

পরিবার থেকে তখন বলা হয়েছিল আনোয়ারকে কেউ তাকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে এবং নিখেঁজের কয়েক দিনের মাথায় অজ্ঞাত নম্বর থেকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা চাঁদাও দাবি করেছিল। পরে পুলিশ তদন্ত করে বুঝতে পারে টাকা চাওয়ার বিষয়টি স্রেফ প্রতারণা।

 

এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেনের ছোট ভাই মো. সেলিম বাদী হয়ে লোহাগাড়া থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »