শিরোনামঃ
বৌমার সন্তান না হওয়ায় নিজেই গর্ভবতী হলেন শাশুড়ি! যশোরের ঝিকরগাছায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কলেজ ছাত্র নিহত অগ্নিবীণা ক্রীড়া ও যুব সংঘের পক্ষ থেকে আবু নাইম ইকবালকে ফুলেল শুভেচ্ছা এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তা করায় এসআই হাসান বরখাস্ত হালদায় ৯ কেজি ওজনের আঘাতপ্রাপ্ত মৃত মা মাছ উদ্ধার গজারিয়ায় পাকা সেতুতে উঠতে বাঁশের সাঁকো ৬ বছরেও কাটেনি ভোগান্তি ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের গজারিয়ায় ২০ মিনিট ব্যাবধানে ৪ টি সড়ক দুর্ঘটনায় আহত-২৪ নরসিংদীর ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশের নিরাপদ সড়ক শীর্ষক সচেতনতা কার্যক্রম নরসিংদীর মনোহরদীতে পুস্প সাহা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা  ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি করলো প্রশাসন
জাজিরায় নদী খননের বালু লুটপাটের মাধ্যমে কোটি

জাজিরায় নদী খননের বালু লুটপাটের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকায় বিক্রি


ফটো-শরীয়তপুর

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুর জেলার জাজিরা থানার নাওডোবা বাজার হতে জাজিরা পর্যন্ত পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে প্রায় ১৭ কিলোমিটার নদী খননের কাজ চলছে। সরেজমিনেদেখাগেছে মামুন এন্টার প্রাইজের মালিকানাধীন দুইটি ড্রেজার দ্বারা নদী হতে বালু খনন করে নির্ধারিত স্থানে রাখে।সেখান থেকে তা স্থানীয় দালাল মোঃ মিরাজ হাওলাদার ,মো মানিক ঢালী, মোঃ মোস্তফা ঢালী, মোঃ জব্বার ঢালী, এদের মাধ্যমে ৬ ইঞ্চি পাইপ দ্বারা নির্ধারিত স্থান থেকে বিভিন্ন লোকের কাছে ৫/৬ টাকা ফুট হিসেবে বিক্রি করে দিচ্ছে তারা এসব বালু দ্বারা ব্যাক্তি মালিকানাধীন পুকুর ডোবা,জলাশয়,ব্যক্তিগত রাস্তা, ভরাট করছে।মামুন এন্টারপ্রাইজের মালিক ও স্থানীয় দালালরা প্রতিদিন নদীখননের বালু লক্ষ লক্ষ টাকা বিক্রি করছে।নদী খননের ক্ষেত্রে পানি উন্নয়ন বোর্ড যেভাবে কাজ করতে বলেছে এবং কাগজপত্রে যে দিক নির্দেশনা রয়েছে ওই দিকনির্দেশনাকে তোয়াক্কা করছে না মামুন এন্টার প্রাইজের মালিক মামুন।নদী খননে হচ্ছে অনিয়ম ও দুর্নীতি। এ বিষয়ে মামুন এর সাথে চুক্তিপত্র সাপেক্ষে যাহারা দৈনিক লক্ষ লক্ষ টাকার বালু বিক্রি করে আসছে তাদের সাথে কথা বলে জানা যায় আমরা বালু ৫/৬ টাকা হারে প্রতি ফুট বিক্রি করছি তা সত্য তবে মামুন ভাই আমাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্ধতন মহলের কর্মকর্তাদের এবং আমাদের জাজিরার এসিল্যান্ড স্যার, জাজিরা থানার ওসি স্যার,ও নাওডোবার তহশীলদার এদেরকে ঘুষ দিয়েই প্রকাশ্যে বালু বিক্রি করা হচ্ছে।অন্যথায় বালু বিক্রি করা সম্ভব নয়।পানি উন্নয়ন বোর্ডের শর্ত অনুযায়ী বাস্তবে কাজের মিল নাই ।নদী খননের কাজে হচ্ছে অনিয়ম ও দুর্নীতি।দুর্নীতির নেপথ্যের নায়ক হিসেবে দায়িত্বপালন করছে মামুন ও মিরাজ হাওলাদার ,মোস্তফা ঢালী,মানিক ঢালী, জব্বার ঢালী সহ কয়েকজন। স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ আব্দুল জলিল হাওলাদার ,মোঃ তায়েম বেপারী,মোঃ সিরাজ মোড়ল,মোঃ শওকত মাদবর, মোঃ দাদন ঢালী(মেম্বার) মোঃ আইয়ুব ঢালী,মোঃএনামুল ঢালী,মোতাহার ঢালী,আনোয়ার ঢালী সহ ৬০/৭০ব্যাক্তি না্ওডোবা বাজারে এসে উপস্থিত হয়ে উচ্চস্বরে সংবাদ কর্মীদের বলেন নদী খননের যে মাটি ও বালু উত্তোলন হবে ঐ মাটি ও বালু দ্বারা নদীর দুই পাড়ে বাধ বাধার কথা রয়েছে।কিন্তু ঠিকাদার মামুন দুইপাশে বাধ না বেধে ড্রজারের পাইপদ্বারা বালু বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে ৫/৬ টাকা ফুট হিসেবে বিক্রি করে দিচ্ছে ।আমরা এলাকাবাসী অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদ করলে বালু বিক্রেতারা জাজিরা থানার ওসির ভয় দেখায়।তারা নাকি বালু বিক্রির টাকা একা খায় না প্রশাসনের উর্ধতন মহল কে দিয়ে থুয়েই খায়।উক্ত এলাকা বাসীরা আরো বলেন অতি জরুরী ভিত্তিতে অবৈধ ভাবে বালু বিক্রি বন্ধ না হলে আমরা গ্রামবাসী অতিশীঘ্রই জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানব বন্ধন করব।এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি অবগত করব।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »