শিরোনামঃ
ভারতের দিল্লিতে নিযুক্ত হাই-কমিশানের প্রতিনিধি দলের বেনাপোল বন্দর পরিদর্শন নরসিংদীর শিবপুরে উপজেলা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ইতিহাসে এই প্রথম নারীদের নেতৃত্বে দূর্গাপূজার আয়োজন যশোরে নরসিংদীর রায়পুরায় ছাত্রলীগ সভাপতির বিরদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ,ভিকটিম উদ্ধার স্বাধীনতার ৫০ বছরেও তালিকায় ঠাঁই মেলেনি মণিরামপুরের ৫ শহীদ মুক্তিযোদ্ধার ৫ ভাইয়ের সঙ্গে তরুণীর সংসার রাজাপুর থেকে চুরি হওয়া ২টি গরু বরিশাল থেকে উদ্ধার চোর চক্রের সর্দার আটক ছাতকে নৌ-পথের ছিনতাইকারী ইদন মিয়া গ্রেফতার টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত বরগুনাসহ উপকূল ঠাকুরগাঁওয়ে রশিক রায় জিউ মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি
খোলা চিঠি আমি ইঞ্জিঃ রবিউল হোসাইন

খোলা চিঠি আমি ইঞ্জিঃ রবিউল হোসাইন


দেশের গর্জন ফটো

গর্জন ডেস্কঃ আমি ইঞ্জিঃ রবিউল হোসাইন উখিয়া উপজেলার আওতাধীন ৫ নং পালংখালী ইউনিয়নের একজন স্থানীয় বাসিন্দা এবং অধিকার বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক। খুব অল্প সময়ের মধ্যে স্রোতের মত আসা রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয় জনসাধারণের জীবন নানা দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত, বঞ্চিত। এরকম নানা সমস্যায় স্থানীয়দের মধ্যে তিক্ততা বিরাজ করছে। সব মিলিয়ে আমরা খুব বিপদের মধ‍্যে রয়েছি। রোহিঙ্গাদের চাপে কৃষি জমি, বন, সার্বিক নিরাপত্তা, শ্রমবাজার এবং শিক্ষাসহ স্থানীয় মানুষের জীবন আজ নানা দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত। স্থানীয় শ্রমবাজারে রোহিঙ্গারা সস্তায় কাজ করার কারণে স্থানীয়দের আর কাজ জুটছে না। এই ইউনিয়নের অধিকাংশ পরিবারই নিম্ন মধ‍্যবিত্ত। উখিয়া টেকনাফের রোহিঙ্গা অধ‍্যুসিত এলাকার ৫২% মৌজা এবং ১৭-২০ টি রোহিঙ্গা ক‍্যাম্প এই ইউনিয়নের আওতাধীন। যেখানে অন্তত ৩০০০০ চাকরিজীবি রয়েছে যাদের অধিকাংশই স্থানীয় জনগোষ্ঠী নই। রোহিঙ্গা ক‍্যাম্পে প্রায় ১৩৪ টিএনজিও কাজ করছে। RRRC এর নিয়মানুযায়ী এনজিওতে ৭০% কর্মসংস্থান স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য থাকলেও আমাদের ইউনিয়নের জনসাধারণ চাকরি করছে সর্বোচ্চ ২০%। অথচ এই ইউনিয়নের অলমোস্ট সব পরিবারে শিক্ষিত বেকার ছেলে মেয়ে রয়েছে। তাদের পরিবারগুলো আজ মানবেতর জীবন যাপন করছে। ইউএন অর্গানাইনেজশন বা এনজিওগুলো তাদের বাজেটের ২৫ শতাংশ স্থানীয়দের উন্নয়নে ব্যয় করার ঘোষণা থাকলেও সেই অনুযায়ী কাজের সঠিক বাস্তবায়ন এবং সচ্ছতা নিশ্চিত হচ্ছে না, ব‍্যাপক দুর্নীতি হচ্ছে। এনজিওতে চাকরির ক্ষেত্রে নিয়োগের কার্যক্রমে কোন সচ্ছতা নাই। এই কার্যক্রমে সচ্ছতার জন্য জেলাপ্রশাসন ও স্থানীয়দের সমন্বয়ে একটি মনিটরিং সেল গঠন করা খুবই জরুরি। আমরা আজ নিরুপায় হয়ে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর পক্ষে আপনার নিকট বিনীত আবেদন করছি, মানবিক বিবেচনা থেকে অবিলম্বে এইসব সমস্যাসমূহ সমাধান করে আমাদের অভিন্ন ন‍্যায‍্য অধিকার ফিরিয়ে দিবেন। কক্সবাজারস্থ উখিয়া উপজেলার আওতাধীন ৫ নং পালংখালী ইউনিয়নের স্থানীয় জনগোষ্ঠীর অভিন্ন ন‍্যায‍্য দাবিসমূহঃ ১. ইউএন অর্গানাইনেজশন বা এনজিওগুলো তাদের বাজেটের ২৫ শতাংশ স্থানীয়দের উন্নয়নে ব্যয় করার যে ঘোষণা দিয়েছে সেই অনুযায়ী কাজের সঠিক বাস্তবায়ন এবং সচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে। ২. সরকারের নির্দেশনা অনুসারে রোহিঙ্গা প্রোগ্রামে এনজিওর চাকরিতে স্থানীয় জনগনের যে ৭০% কোটা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ নং পালংখালীর স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য তা নিশ্চিত করতে হবে। ৩. নিয়োগের কার্যক্রমে সচ্ছতা আনতে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসন ও স্থানীয় প্রতিনিধির সমন্বয়ে একটি মনিটরিং সেল করতে হবে। ৪. এনজিওতে চাকরির জন্য প্রতিটি অফিসে সরাসরি আবেদন গ্রহণের ব্যবস্থা করতে হবে। ৫. ইউনিয়নের স্থানীয় জনসাধারণের জন্য আধুনিক মানের হাসপাতাল নির্মাণ করতে হবে এবং ইমার্জেন্সি রোগীর জন্য ২৪ ঘন্টা ফ্রি এম্বুল‍েন্স সার্ভিসের ব‍্যবস্থা করতে হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »