শিরোনামঃ
ভারতের দিল্লিতে নিযুক্ত হাই-কমিশানের প্রতিনিধি দলের বেনাপোল বন্দর পরিদর্শন নরসিংদীর শিবপুরে উপজেলা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ইতিহাসে এই প্রথম নারীদের নেতৃত্বে দূর্গাপূজার আয়োজন যশোরে নরসিংদীর রায়পুরায় ছাত্রলীগ সভাপতির বিরদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ,ভিকটিম উদ্ধার স্বাধীনতার ৫০ বছরেও তালিকায় ঠাঁই মেলেনি মণিরামপুরের ৫ শহীদ মুক্তিযোদ্ধার ৫ ভাইয়ের সঙ্গে তরুণীর সংসার রাজাপুর থেকে চুরি হওয়া ২টি গরু বরিশাল থেকে উদ্ধার চোর চক্রের সর্দার আটক ছাতকে নৌ-পথের ছিনতাইকারী ইদন মিয়া গ্রেফতার টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত বরগুনাসহ উপকূল ঠাকুরগাঁওয়ে রশিক রায় জিউ মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি
ক্যান্সারে আক্রান্ত মেয়েকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা চান

ক্যান্সারে আক্রান্ত মেয়েকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা চান ময়মনসিংহের মা আশা


ফুলপুর ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ বিধাতার কি লীলাখেলা যে বয়সে খেলাধুলা করার, স্কুলে যাওয়ার ও সবার সাথে আনন্দ করার সময় সে বয়সেই কেড়ে নিতে যাচ্ছে ৮ বছরের ফুটফুটে ছোট শিশু আতিকা আক্তারের জীবন। আর এই বয়সেই সে ব্লাড ক্যান্সারে আক্তান্ত হয়ে পড়েছে। জানা যায়, চার বছর আগে তার এই সমস্যা ধরা পড়ে। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হাসপাতাল থেকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত  পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে প্রথমিক চিকিৎসার পর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পরামর্শ দেন, আতিকাকে সুচিকিৎসার জন্য ভারতের চেন্নাইয়ে নিয়ে চিকিৎসা করলে ভালোও হতে পারে। আতিকার বাবা আমিরুল ইসলাম জানান, আমি পেশায় একজন গরীব ভ্যানচালক। নিজেও শারীরিকভাবে অসুস্থ্য। মা আতিকার চিকিৎসার জন্য দিন-রাত বিভিন্ন জনের সহযোগীতা প্রত্যাশায় ঘুরছি । তিনি আরোও বলেন, ভারতের চেন্নায় নিয়ে অপারেশন করাতে ছয় লাখ টাকা লাগবে আর সে টাকা বা সমপরিমাণ সম্পদ নেই আমার । আতিকার মা আশা জানায়, আতিকা প্রায় সময়েই ব্লাড ক্যান্সারের কারণে বিভিন্ন ভাবে দুর্ভল হয়ে পড়লে তাকে  প্রায়ই হাসপাতালে নিয়ে রক্ত ভরতে হয়। সেক্ষেত্রে নিকটাত্মীয়দের সহযোগীতা কোনভাবে তাকে বাচিয়ে রাখা হচ্ছে। হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসা বিল দেওয়ার সময় বিপত্তি বাধে । আতিকা বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে সাময়িক চিকিৎসায় অর্থের অভাবে বাধ্য হয়ে শিশু আতিকাকে নিয়ে অনেকসময় বাড়ী ফিরে আসতে বাধ্য হয় তার মা আশা। মা আশা আরো জানান, ভারতে যাতায়াত করতে যে টাকার প্রয়োজন তা সংগ্রহ করা তার পক্ষে কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তাই মেয়ের জীবন বাঁচাতে হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সহায়তা কামনা করেছেন তিনি। ছয় লাখ টাকা হলেই শিশুকে ভারতে নিয়ে চিকিৎসা করাতে পারবেন বলে জানান তিনি। মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য ” আসুন না সবাই মিলে শিশুটিকে বাঁচানোর জন্য হাত বাড়িয়ে দেয়। ওদের কাছে এ ছয় লাখ টাকা অনেক কিছু। কিন্তু যদি সবাই সহযোগীতার হাত বারিয়ে দেয় তাহলে কিন্তু এই ছয় লাখ টাকা কিছুয় না । আমরা কত টাকা কত বা খরচ করি আর এক সাপ্তাহের খরচ কমিয়ে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে মেয়েটির পাশে দাড়াই । যোগাযোগ ও সহায়তা পাঠানোর ঠিকানা: মা  আশা আক্তার  (বিকাশ নম্বর) : ০১৭৯৩৯৪৩২৯৪
সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর : ০২০০০১৩২৮৩৪১১, অগ্রণী ব্যাংক, মেডিকেল কলেজ শাখা, চড়পাড়া, ময়মনসিংহ। মেয়ের জীবন বাচাতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মমতাময়ী মা, বঙ্গবন্ধুর কন্যা, দেশরত্ন শেখ হাসিনার জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন মৃত্যুপথযাত্রী আতিকার মা আশা আক্তার।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2020 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »