অসহায় কৃষকের পাশে ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক

অসহায় কৃষকের পাশে ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ


ফটো-ইমদাদুল হক

ইমদাদুল হক, আশুলিয়া প্রতিনিধিঃ বিশ্বব্যাপী করোনার ক্রান্তিলগ্নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আফজালুর রহমান বাবু’ নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন যার যার এলাকার অসহায় কৃষকের পাশে দাড়াবার।

ঢাকার সাভারের বনগাঁও ইউনিয়নের চাকুলিয়া গ্রামের দরিদ্র কৃষক জাহান মিয়া (৫৬)। নিজের শেষ সম্বল ৩ বিঘা জমিতে চাষাবাদ করে পরিবারের সদস্যদের জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। জমিতে ধানের ফলন বেশ ভালো হয়েছে। পেকে গেছে ধান। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে চলমান লক ডাউনের জন্য ধান কাটার শ্রমিকদের অভাব।

আবার যাদেরকে একাজে পাওয়া যাচ্ছে, তারা চড়া মজুরি ছাড়া কাজ করবেন না। তাই পাকা ধান কিভাবে কাটবেন সেই চিন্তায়ই দিশেহারা ছিলেন প্রান্তিক কৃষক জাহান মিয়া। লোক মারফত সায়েম মোল্লা জানতে পারেন বনগাঁও ইউনিয়নের এক অসহায় কৃষক তাঁর পাকা ধান কাটতে পারছেন না। মুহুর্তেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন সদ্য করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ঘরে ফেরা ঢাকা জেলা উত্তর এর এই সাধারণ সম্পাদক সাবেক ছাত্র নেতা সায়েম মোল্লা।

সোমবার (০৩ মে) দুপুরে তাঁর ইউনিটের দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে হাজির হন বনগাঁও ইউনিয়নের চাকুলিয়া গ্রামে। নিজে মাঠে নেমে অসহায় কৃষক জাহান মিয়ার ৩ বিঘা জমির ধান কেটে, মাড়াই করে বাড়ি পৌঁছে দেন।

এব্যাপারে জানতে চাইলে ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সায়েম মোল্লা বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আফজালুর রহমান বাবু ভাই এর দিক নির্দেশনায় এবং সাভার উপজেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জননেতা মঞ্জুরুল আলম রাজীব ভাই এর অনুপ্রেরণায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ (সোমবার) আমার নেতৃত্বে দলীয় নেতাকর্মীগণ বনগাঁও ইউনিয়নের চাকুলিয়া গ্রামের দরিদ্র কৃষক জাহান মিয়ার ৩বিঘা জমির ধান কেটে মাড়াই করে বাড়ি পৌঁছে দিয়েছি।

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সব সময় সকল দুর্যোগে সমাজের অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পাশে ছিলো এবং ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও থাকবে। আমরা আমাদের ইউনিট এলাকার ভিতর যখনই খবর পাবো যে, কোনো অসহায় কৃষক শ্রমিকের কিংবা টাকাপয়সার অভাবে তাদের পাকা ধান কাটতে পারছেন না, আমরা তাদের পাশে হাজির হবো এবং সর্বোচ্চ সাহায্য করবো বলেও জানান তিনি। এ ব্যপারে দরিদ্র কৃষক জাহান মিয়া। তিনি জানান, লক ডাউনের জন্য এমনিতেই ধান কাটার শ্রমিক নাই, আর যাদের পাই তারা অনেক মজুরি চায়, যা দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব না।

এজন্য যখন হঠাৎ করে আজ ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতারা আমার জমির ধান কেটে তাও আবার মাড়াই করে আমার বাড়ি পৌঁছে দিলো, আমার বলার কোনো ভাষা নাই। আমি তাদের জন্য দোয়া করি, আল্লাহ যেন তাদের সবার ভালো করে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক টিপু সুলতান, প্রচার সম্পাদক জাভেদ হোসেন, সহ গ্রন্থনা সম্পাদক মোক্তার হোসেন, কার্যকরী সদস্য জাহাঙ্গীর মোল্লা, আশুলিয়া থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি মোজাম্মেল মিয়া, বাপ্পী সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক সোহরাফ হোসেন সহ ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter
All rights reserved © 2021 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »